Articles Comments

সরলপথ- الصِّرَاطَ الْمُسْتَقِيمَ » আমল / ইবাদত » আমি সারাজীবন আমার মনমত গুনাহ করে যাব আর মৃত্যুর ঠিক ৫ মিনিট আগে আমি বলব ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’

আমি সারাজীবন আমার মনমত গুনাহ করে যাব আর মৃত্যুর ঠিক ৫ মিনিট আগে আমি বলব ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’

আমি সারাজীবন আমার মনমত গুনাহ করে যাব আর মৃত্যুর ঠিক ৫ মিনিট আগে আমি বলব ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’ – না, এটা এতো সহজ না। এভাবে আপনি পরিকল্পনা করছেন, আল্লাহর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। আপনি যখন এসব কথা বলেন তখন আপনি আসলে আল্লাহর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করছেন। কিভাবে? কারণ আপনি প্রকৃতপক্ষে আল্লাহকে বলছেন, ‘আমি তোমার ইবাদত করব না’। আপনি এটা নিয়্যত করছেন যে আপনি জীবনের শেষ মুহূর্ত টা আসার আগ পর্যন্ত আল্লাহর ইবাদত করবেন না! এটা কি?

এটা কি আল্লাহর বিরুদ্ধেই ফন্দী আঁটা নয় কি? আমি যা চাইব তাই করব, আমি এখনও অল্পবয়সী, বুড়ো হবার পর তওবার কথা চিন্তা করব। আল্লাহ আপনাকে বলছে- ‘তোমার জীবনের প্রতি দিন প্রতি রাতে আমারই ইবাদত করো’, আর আপনি বলছেন, ‘না, আমি এখান থেকে কোনোভাবে পালিয়ে থাকি, শুধু শেষে যেয়ে তওবা করে ফেলব, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা কে আমি বোকা বানাবো’। আল্লাহ তা’আলা বলেন, “আর তারা চক্রান্ত করেছিল, আর আল্লাহ্‌ও পরিকল্পনা করেছিলেন। আর আল্লাহ্ পরিকল্পনাকারীদের মধ্যে সর্বোত্তম।” [সূরাহ আলে ইমরান ৩:৫৪]

একজন শায়খ (স্কলার) কয়েক সপ্তাহ আগে একটা বাস্তব ঘটনা বর্ণনা করছিলেন। তারা একজন বৃদ্ধ লোকের সাথে দেখা করতে গিয়েছিল যে জীবনের অন্তিমশয্যায় চলে এসেছিল, তারা ঐ বাড়িতে পৌঁছে দেখলেন সারা বাড়ি উম্মে কুলসুমের (একজন আরব সঙ্গীতশিল্পী) গানে গমগম করছে। এই লোকটা তার জীবনের শেষ মুহূর্ত কাটাচ্ছে আর টেপ রেকর্ডারে ফুল ভলিউমে গান চলছে। শায়খ তাদের কাছে যেয়ে বললেন, ‘আল্লাহকে ভয় করুন, একজন মানুষ মারা যাচ্ছে আর আপনারা গান শুনছেন’। তাই তারা গান বন্ধ করে কুরআন ছেড়ে দিল। যখন সে বৃদ্ধ ব্যক্তি কুরআন শুনতে পেল সে বলল, ‘বন্ধ করো এটা, আর উম্মে কুলসুমের গান আবার লাগাও, কারণ ওটা শুনলে আমার মন জুড়িয়ে যায়’, এরপর সে মারা গেল।

যখন আপনি জীবনে একটা জিনিস নিয়ে চলতে থাকবেন, আপনি মারাও যাবেন সেটা নিয়েই। আপনি যেসব কাজ করে অভ্যস্ত সেসব কাজ করতেই করতেই আপনার মারা যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। কখনোই ভাববেন না আপনি আল্লাহ কে বোকা বানাবেন। আপনার মনে আল্লাহর ভয় থাকা উচিত। যে ব্যক্তি আল্লাহর আযাব থেকে নিজেকে নিরাপদ মনে করে তারাই ক্ষতিগ্রস্ত। ‘খাশিয়া’ (আল্লাহ ভীতি) মুসলিমদের জন্য খুবই মৌলিক একটা ব্যাপার। একজন মুসলিম হওয়ার জন্য, ঈমানদার হওয়ার জন্য অবশ্যই অন্তরে খাশিয়া (আল্লাহর ভয়) থাকতে হবে।

– পরকালের পথে যাত্রা সিরিজের ২ নং পর্ব থেকে সংগৃহীত
( Al-Amin Jame Mosjid,Mohammadpur)

Share this nice post:
Profile photo of sajiblobon

Written by

Filed under: আমল / ইবাদত

Leave a Reply

Skip to toolbar